দেশের বাজারে হুয়াই জি সেভেন প্লাস

বাংলাদেশের বাজারে উম্মুক্ত হলো বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হুয়াইয়ের সর্বশেষ স্মার্টফোন জি সেভেন প্লাস। রবিবার ডিভাইস বিজনেসের ডিরেক্টর ইংমার ওয়্যাং রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ডিভাইসটি উন্মোচন করেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সাশ্রয়ী মূল্যের ডিভাইসটিতে উচ্চ প্রযুক্তি সম্পন্ন স্মার্টফোনের সব ফিচার থাকছে। গ্রাহককে চমৎকার পারফরমেন্সের দেওয়ার উপযোগী করে স্মার্টফোনটি ডিজাইন করা হয়েছে। বিশেষত যারা সামাজিক এবং ব্যবসায়িক কর্মকান্ডের ক্ষেত্রে স্মার্টফোনের উপর নির্ভর করেন তাদের জন্য যথাযথভাবে এটি তৈরি করা হয়েছে। প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে হ্যান্ডসেটটির ডিজাইন ও উৎকৃষ্ট মানের উপাদান।

ডিভাইসটির ৩০০০ এমএএইচ ব্যাটারিটি দিয়ে সর্বোচ্চ ৮ ঘন্টা পর্যন্ত অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং, ১০ ঘন্টা ফোন কল অথবা ৬ ঘন্টা পর্যন্ত ওয়েব ব্রাউজিং করা যাবে। ডিভাইসটিতে হুয়াই সুইচিং টেকনোলজি সম্পন্ন একটি ডুয়েল অ্যান্টেনা যুক্ত করেছে, যা অন্যান্য ডিভাইসের তুলনায় দুর্বল নেটওয়ার্কেও ৪০ শতাংশ পর্যন্ত উচ্চমানের কানেক্টিভিটি ও শতভাগ শক্তিশালী সিগন্যাল স্ট্রেংথ দিবে।

huawei g7 Plus Feature

হুয়াই জি সেভেন প্লাস এ মাল্টিপল ফাংশনের জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটির বডি তৈরিতে এয়ারক্রাফট গ্রেড অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহৃত হয়েছে। ২.৫ ডি স্ক্রিন ব্যবহার করা হয়েছে, যাতে রয়েছে কার্ভড এজ। ৫.৫ ইঞ্চির এইচডি ডিসপ্লেটিতে আছে ১৯২০*১০৮০ রেজ্যুলেশন। হুয়াই জি সেভেন প্লাস এর বিএসআই লেন্স সমৃদ্ধ ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরাটিতে আছে এফ২.০ অ্যাপারচার, ২৮ এমএম ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স, অ্যান্টি ভাইব্রেশন, আরজিবিডব্লিউ সেন্সর এবং ইমেজ সিগন্যাল প্রসেসর, যা সাধারণত প্রফেশনাল ডিজিটাল এসএলআর ক্যামেরাতে ব্যবহার করা হয়।

অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, হ্যান্ডসেটটিতে রয়েছে চারটি কালার সমৃদ্ধ আরজিবিডব্লিউ সেন্সর, যা ছবির ব্রাইটনেসকে ৩২ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ায় এবং স্বল্প আলোয় তোলা ছবিতে অস্পষ্টতা ৭৮ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে দিতে পারে। ডিভাইসটির সামনে আছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, ১.৫ গিগাহার্টজের ৬৪বিট অক্টাকোর কোয়ালকম স্নাপড্রাগন ৬১৬ সিরিজের চিপসেট এবং শক্তিশালী কোয়ালকম আড্রেনো ৪০৫ সিরিজ জিপিইউ প্রসেসর। এতে আরও রয়েছে ৩ জিবি র‌্যাম, ৩২ জিবি ইন্টারন্যাল মেমোরি, যা মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে। ৪জি এবং ডুয়েল সিম সমর্থিত এই ফোনটিতে আরও আছে গ্র্যাভিটি, প্রক্সিমিটি, লাইট, ও ম্যাগনেটিক সেন্সর।

হ্যান্ডসেটটির বাজার মূল্য ৩৪ হাজার ৯৯০ টাকা। এটি বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্কের হুয়াই শোরুমসহ দেশ জুড়ে বিস্তৃত হুয়াই ব্রান্ড ইমেজ শপ গুলোতে পাওয়া যাবে। এছাড়াও ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেটসহ অন্যান্য শহরের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল মার্কেটগুলোতেও পাওয়া যাবে।